Home > অন্যান্য > স্ত্রীকে নিয়ে বিলাসবহুল ভবনে ছেলে, মুরগির খামারের সঙ্গে বাবা

স্ত্রীকে নিয়ে বিলাসবহুল ভবনে ছেলে, মুরগির খামারের সঙ্গে বাবা

কুমিল্লা লাকসাম উপজেলায় পাঁচতলা ভবনের তিন তলায় বসবাস করেন ছেলে সামছুল হক ও স্ত্রী শাহিদা আক্তার। অথচ, বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী অসুস্থ বৃদ্ধ বাবাকে ফেলে রেখেছেন ভবনের ছাদে মুরগি খামারের সঙ্গে ছোট্ট টিনের ঘরে।

রোববার (২০ নভেম্বর) বিকেলে সরেজমিনে এই দৃশ্য দেখা যায়। এ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজা মতিন ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর।

ভুক্তভোগী ইয়াকুব আলী (৮০) কুমিল্লা লাকসাম পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডে কলেজে রোড ও পশ্চিমগাঁও পুরান বাজার এলাকার বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্র থেকে জানা যায়, বৃদ্ধ ইয়াকুব আলী উপজেলা কান্দিরপাড় ইউনিয়ন ছঁনগাও গ্রামের নিজবাড়িতে স্ত্রী ও দুই ছেলে, পাঁচ মেয়ে নিয়ে থাকতেন। ২০০৬ সালে তার স্ত্রী মৃত্যুর পর অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, বড় ছেলে প্রবাসী সামছুল হক ২০০৭ সালে উপজেলার পশ্চিমগাঁও পুরান বাজার এলাকায় সাত শতক সম্পত্তির মধ্যে ‘হক মঞ্জিল’ নামে একটি বহুতল ভবন নির্মিত করেছেন। ছেলে সামছুল হক ভবনের তিন তলায় স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে থাকেন। পাঁচ তলা ভবনের ছাদের ওপর একটি টিনের ঘরে রাখছেন তার বৃদ্ধ বাবাকে। ঘরের একপাশে মুরগি খামার অন্যপাশে বস্ত্রহীন অবস্থায় পড়ে আছেন বৃদ্ধ ইয়াকুব আলী। চটের বিছানার আশপাশ দুর্গন্ধ ও ব্রয়লার মুরগির ময়লা।

 

লাকসাম পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আবু সায়েদ বাচ্চু সাংবাদিকদের জানান, ভুক্তভোগী বৃদ্ধকে প্রায়ই এলাকায় দেখতাম। তবে গত কয়েক মাস ধরে দেখি না। তার ছেলে সন্তানরা থাকার পরও নিজবাড়ির ছাদে বসবাস এটি খুবই দুঃখজনক।

এ বিষয়ে লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজা মতিন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রোববার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ছিলাম। পরে বৃদ্ধ বাবাকে এখান থেকে তাদের বাসায় নিয়ে আসার জন্য সময় দেওয়া হয়েছে। যদি তারা দায়িত্ব পালন না করে, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।