Home > অন্যান্য > হাজী সেলিমের দখলে থাকা তিব্বত হল উদ্ধারে জবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

হাজী সেলিমের দখলে থাকা তিব্বত হল উদ্ধারে জবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের দখলে থাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (তৎকালীন জগন্নাথ কলেজ) বেদখলকৃত তিব্বত হলসহ বাকি হলগুলো উদ্ধারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে তারা। মানববন্ধন শেষে প্রধান ফটক থেকে ক্যাম্পাসের ভেতরে বিক্ষোভ মিছিল করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে বেদখলকৃত হল উদ্ধারের দাবি জানান। সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন হল উদ্ধারে পদক্ষেপ গ্রহণ না করলে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন তারা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, তৎকালীন জগন্নাথ কলেজের হলে দীর্ঘদিন যাবত শিক্ষার্থীরা বসবাস করে আসছিল। ১৯৮৫ সালে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনের সময় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হলগুলো বন্ধ করে দেয়।

পরবর্তীতে এসব হলে শিক্ষার্থীরা আর ফিরতে পারেননি। স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি ও পুলিশ হলগুলো দখল করে নেয়। সোয়ারীঘাটে অবস্থিত তিব্বত হলটি ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিম দখল করে নেন।

২০০৯, ২০১১ ও ২০১৪ সালের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পর কয়েকটি হল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অধীনে চলে আসে। কিন্তু সরকারের আশ্বাসের পরও বেদখলকৃত বাকিহলগুলো উদ্ধার হয়নি।

তারা আরও বলেন, হল উদ্ধারে সরকার কর্তৃক গঠিত কমিটি প্রতিবেদন দিলেও- তা আর আলোর মুখ দেখেনি। কয়েকটি হলের মালিকানা নিয়ে সরকারের সঙ্গে ভূমিদস্যুদের মামলা চললেও সে মামলাগুলো আজ তলানিতে পড়ে আছে। সরকারে পক্ষ থেকেও মামলার আর খোঁজ-খবর রাখা হয়নি।

ফলে অনাবাসিক বিশ্ববিদ্যালয়টির হলগুলো প্রভাবশালী ব্যক্তিরা দখল করে সেখানে শপিংমল করে বিক্রিও করে দিয়েছে। সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে দাবি হলগুলো উদ্ধারে উদ্যোগ গ্রহণ করবে। না হলে শিক্ষার্থীরা হল দখলের আন্দোলনে কঠোর হবে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের বাসায় র‌্যাব অভিযান চালানোর পর তার দখলকৃত তিব্বত হলের বিষয়টি আবার আলোচনায় আসে। তিব্বত হলটিকে গুলশান আরা সিটি নাম দিয়ে দখলে রেখেছেন এই বিতর্কিত সংসদ সদস্য।

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*